ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন নিন সহজেই | Dutch Bangla Bank Loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন তিন প্রকারের হয়ে থাকে, ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন, পারসোনাল লোন, এবং কার/যানবাহন লোন দিয়ে থাকে। আপনি যদি ৩০ হাজার টাকার মধ্যে একটি চাকরি করে থাকেন কিংবা গবর্মেন্ট জব করে থাকেন, অথবা বিজনেস করেন তাহলে ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে আপনি যেকোন লোন নিতে পারবেন। 

আরও পড়ুন আশা এনজিও লোন পদ্ধতি

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন কি কি?
ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন পেতে কতটুকু যোগ্যতা প্রয়োজন?
ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন নিতে কি কি কাগজপত্র লাগবে?
Dutch Bangla Bank Loan কত দিনের মধ্যে পরিশোদ করতে হয়?
ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন-এর সুদের হার কত?
ডাচ বাংলা ব্যাংক কত টাকা লোন দিয়ে থাকে?

আপনি যদি এই সকল প্রশ্নের উত্তর জানতে চান তাহলে এই পোস্ট শেষ পর্যন্ত পড়ুন, এই পোস্ট শেষ পর্যন্ত পড়লে Dutch Bangla Bank Loan সম্পর্কে আপনারা সকল তথ্য জানতে পারবেন, এবং অন্য কোন পোস্ট পড়ার প্রয়োজন হবেনা। কারণ এই পোস্ট-এ Dutch Bangla Bank Loan নিয়ে আমরা বিস্তারিত তথ্য লিখেছি।  

আরও পড়ুন কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার নিয়ম

আমরা তিনটি লোনের সকল পারতক্ষ কিংবা কাগজপত্র অথবা যোগ্যতা সবকিছুই আলাদা ভাবে লিখব, তাই আপনি যেই লোন নিতে ছাচ্ছেন সেটা পড়ুন, তাহলে পরিপূর্ণ ধারণা পাবেন। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন সেবা কত প্রকার, এবং পারতক্ষ?

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন,Dutch Bangla Bank Loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক মোট তিন ধরনের লোন প্রধান করে থাকে, 

সেগুলো হলো – 

  • ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক পারসোনাল লোন
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক যানবাহন/গাড়ি লোন

এই তিনটি লোনের মধ্যে রয়েছে অনেক মিল এবং অমিল, যেমন এই তিনটি লোন প্রাপ্তির কেত্রে কিছু যোগ্যতা আছে যা সকল লোনের কেত্রে থাকা লাগেব, 

আরও পড়ুন ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পদ্ধতি

আবার অনেক যোগ্যতা আছে যেগুলো শুধু একটা লোনের কেত্রে লাগবে, বা দুটি লোনের কেত্রে লাগেব। 

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলোর মধ্যেও রয়েছে মিল এবং পারতক্ষ,এবং পারতক্ষ রয়েছে টাকার পরিমান, লোনের সুদের হার, লোন পরিশোধের সময়কাল, এবং আরও অনেক কিছুর মধ্যে। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন | DBBL Home Loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন,Dutch Bangla Bank Loan

আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন নিয়ে নতুন বাড়ি বানাতে চান, কিংবা পুরাতন বাড়ি কিনতে চান, অথবা পুরাতন বাড়ি আবার নতুন করে কিনতে চান তাহলে আপনাকে DBBL Home Loan প্রধান করা হবে। 

আরও পড়ুন প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন করার নিয়ম

এছাড়া আপনি যদি ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন নিয়ে অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য অফিচ করতে চান, অথবা পুরাতন অফিস বড় করতে চান তাহলেও আপনি এই লোণটি নিতে পারবেন। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন প্রাপ্তির যোগ্যতা?

  • ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে DBBL Home Loan নিতে হলে প্রথমেই দেখা হবে আপনার আয়ের মাধ্যম, আপনি যে কোন বৈধ কাজ করে থাকলে হোম লোন নিতে পারবেন।  
  • আপনার কাজের অরিজিনাল ডকুমেন্ট দেখাতে হবে, যেমন – বাবসায়ি হলেঃ ট্রাড লাইসেন্স, ডাক্তার হলেঃ রেজিস্টার নাম্বার, চাকরি করলেঃ আবেদন পত্র কিংবা বেতন রশিদ, 

মূল কথা আপনার কাজের প্রমান দিতে হবে। 

এছাড়া আপনার একটি জমি থাকলে সেটার বিপরীতে লোন নিতে পারবেন।

  • আপনি যেই কাজ করেন না কেন আপনার মাসিক ইনকাম বা চাকরির বেতন অবশ্যই সর্বনিম্ন ৩০ হাজার টাকা হতে হবে। 
  • আপনার বয়স ১৮ বছর থেকে ৭০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন পেতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র?

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কাগজপত্র লাগবে হোম লোনের কেত্রে, হোম লোন পেতে আপনাকে অনেক ধরনের কাগজপত্র সংগ্রহ করতে হতে পারে। 

আরও পড়ুন প্রধানমন্ত্রী লোন বাংলাদেশ

DBBL Home Loan পেতে কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন হবে টা নিম্নে লিখা হয়েছেঃ

  • আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবে। 
  • নতুন ছবি তুলেছেন ছবির চেহারা এবং বাস্তবের চেহারা মিল আছে এমন ছবি দিতে হবে, পুরাতন ছবি দিলে হবেনা। 
  • আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট-এর শেষ ৬ মাসের স্টেটমেন্ট। 
  • আপনার পেশা কিংবা কাজের প্রমান করে এই রকম অরিজিনাল ডকুমেন্ট, যেমন – চাকরিজীবী হলেঃ অফিস পরিচয়পত্র, বেতন রশিদ, নিয়োগপত্র।

বাড়ির মালিকদের কেত্রেঃ বাড়ির মালিকানা দলিল, বাড়া প্রাপ্তির রশিদ, অথবা ভাড়াটিয়াদের সাথে চুক্তি পত্র। 

ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রেঃ ট্রাড লাইসেন্স প্রয়োজন হবে।

  • আয়কর রিটানের রশিদ এবং টিন সার্টিফিকেট। 
  • বিদ্যুৎ বিলের কপি। 
  • আপনার জমি কিংবা বাড়ি যদি রেন্ট এর মাধ্যমে নিয়ে থাকেন তাহলে রেন্ট এগ্রিমেন্ট এর দলিল কিংবা অন্যান্য কাগজপত্র জমা দিয়ে হবে। 
  • আপনার জমি কিংবা বাড়ির অরিজিনাল কাগজপত্র, খতিয়ান, খাজনা রশিদ সব কিছু জমা দিয়ে হবে। 
  • আপনার যদি কিংবা বাড়ি যেই মৌজায় অবস্তিত সেই মৌজার ম্যাপ দিতে হবে। 
  • আপনি যদি নতুন বাড়ি করার জন্য লোন নিতে চান, তাহলে বাড়ি যে বানাবে অর্থাৎ কন্টাক্টারের সাথে যেই এগ্রিমেন্ট হয়েছে সেটার কপি দিতে হবে। 

কন্টাক্টারের সাথে এগ্রিমেন্ট হওয়ার আগে লোন নিতে পারবেন না। 

  • পুরাতন বাড়ি ক্রয় করার ক্ষেত্রে বাড়ির বর্তমান মালিক, কন্টাক্টটার, এবং আপনার মধ্যে যেই এগ্রিমেন্ট হয়েছে কিংবা হবে সেটার কপি দিতে হবে। 

এই সকল কাগজপত্র থাকলে আপনি ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে হোম লোন নিতে পারেন। আপনার ক্ষেত্রে এই সকল কাগজপত্র নাও লাগতে পারে, কিংবা এর থেকে আরও বেশি কাগজপত্রও লাগতে পারে। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন বৈশিষ্ট্য? | DBBL Home Loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে DBBL Home Loan নিলে আপনি এই সকল সার্ভিস পাবেন। 

  • ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোনের ক্ষেত্রে সর্বচ্ছো ২ কোঁটি টাকা পর্যন্ত লোন দিয়ে থাকে। 
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন সর্বনিম্ন ১ বছর থেকে ২৫ বছরের মধ্যে পরিশোদ করতে হয়। 
  • আপনার বাড়ি নির্মাণ/ক্রয় এর মোট মূলের ৭০ শতাংশ পরিমান টাকা লোন নিতে পারবেন। 
  • লোন প্রসেসিং ফী দিতে হবে ০.৫০% কিংবা সর্বচ্ছো ১৫ হাজার টাকা। 
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক তাদের লোনের সুদের কোথাও প্রকাশ করেনি, তার কারণ লোনের টাকা এবং লোন কত দিনের মধ্যে সুদ করবেন এটার উপর বিত্তি করে সুদের হার নির্দারন করা হয়। 

আপনার লোনের সুদের হার কত হবে, তা জানার জন্য ব্যাংক-এ গিয়ে তাদের সাথে আলোচনা করে জানতে হবে। 

তবে তাদের লোনের সুদের হার সাধারণত ৯ শতাংশ থেকে ১৭ শতাংশ পর্যন্ত হয়ে থাকে। 

এই ছিল ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন-এর সকল তথ্য, আপনি যদি তাদের যোগ্যতা সমূহ ফুলফিল করতে পারেন এবং সকল কাগজপত্র সংগ্রহ করে জমা দিতে পারেন, তাহলে আপনার লোন পাওয়া খুবি সহজ হবে। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক পারসোনাল লোন | DBBL Personal Loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন,Dutch Bangla Bank Loan

ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে DBBL Personal Loan অনেক খ্যাঁতে নেওয়া যায়, যেমন – আপনি যদি বিবাহ করতে চান, কিংবা পড়াশোনার জন্য লোন নিতে চান অথবা বিভিন্ন জিনিসপত্র কিনতে চান, তাহলে ডাচ বাংলা ব্যাংক আপনাকে পারসোনাল লোন দিবে। 

এছাড়াও চিকিৎসা, ট্রাভেলিং, মেশিনারি জিনিশপত্র, ঘড় ডেকোরেট, অফিস ডেকোরেট, অথবা আপনার অন্য যেকোন বৈধ কাজে লোন দিয়ে থাকে।

DBBL Personal Loan প্রাপ্তির যোগ্যতা?

ডাচ বাংলা ব্যাংকের সকল লোন সার্ভিসের যোগ্যতা সমূহ প্রায় একি রকমের। 

নিম্নে দেওয়া হয়েছেঃ 

  • প্রথমেই আপনার বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে, এবং আপনার ভোটার আইডি কার্ড থাকতে হবে। 
  • আপনার মাসিক ইনকাম ৩০ হাজার টাকার বেশি হতে হবে। 
  • আপনি যদি বেসরকারি চাকরি করে থাকেন তাহলে আপনার চাকরির বয়স ১ বছরের বেশি হতে হবে, দুই বছর হলে ভালো। 

সরকারি চাকরি হলে ৬ মাস বয়স হতে হবে, এবং বিজনেস হলে ২ বছর পুরাতন বিজনেস হতে হবে। 

DBBL Personal Loan পেতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র?

DBBL Personal Loan পাওয়ার জন্য খুব বেশি কাগজপত্র লাগেনা, খুবি অল্প পরিমান কাগজপত্র দিয়ে ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে পারসোনাল লোন নিতে পারবেন। 

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলোঃ 

  • আপনার ভোটার আইডি কার্ড ফটোকপি। 
  • পাসপোর্ট সাইজের দু”কপি ছবি। 
  • আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের শেষ ৬ মাস থেকে ১ বছরের স্টেটমেন্ট। 
  • আপনার বাসার বিদ্যুৎ বিলের কপি। 
  • টিন সার্টিফিকেট ফটো কপি। 
  • একজন গ্যাঁড়ান্টার লাগবে, এবং তারও ভোটার আইডি কার্ড, ছবি, ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর কপি জমা দিতে হবে। 
  • আপনার বেবসা, চাকরি কিংবা অন্য কোন খ্যাঁতের ইনকামের প্রমান এবং প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দেখাতে হবে। 

এই হলো DBBL Personal Loan পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, মাত্র এই কয়টা কাগজপত্র দিয়ে আপনি Dutch Bangla Bank Personal Loan নিতে পারেন। 

Dutch Bangla Bank Personal Loan বৈশিষ্ট্য?

Dutch Bangla Bank Personal Loan এর বৈশিষ্ট্য গুলো হচ্ছেঃ  

  • ডাচ বাংলা ব্যাংক আপনাকে সর্বনিম্ন ৫০ হাজার টাকা থেকে ২০ লক্ষ্য টাকা পর্যন্ত প্রধান করবে।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক পারসোনাল লোন ১২ মাস থেকে ৬০ মাসের মধ্যে সুদ করতে হয়। 
  • লোন প্রসেসিং ফী ০.৫০ শতাংশ। 
  • লোনের সুদের হার ৯ থেকে ১৭ শতাংশ, লোনের পরিমান এবং পরিশোদের সময়কালের উপর নিরবর করে আপনার সুদের হার কত শতাংশ হবে।

Dutch Bangla Bank Personal Loan নিয়ে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করেছি, আপনি মাত্র কয়েকটি কাগজপত্র এবং ৩০ হাজার টাকা বেতনের চাকরি কিংবা বেবসা করলেই খুব সহজে পেয়ে যাবেন ডাচ বাংলা ব্যাংক পারসোনাল লোন। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক কার/যানবাহন লোন!

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন,Dutch Bangla Bank Loan

আপনি যদি একটি গাড়ি কিনতে চান আর আপনার কাছে পর্যাপ্ত পরিমান টাকা নেই, তাহলে আপনি ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে গাড়ির মোট মূলের ৫০ শতাংশ টাকা লোন নিতে পারবেন। 

তবে হ্যাঁ আপনার গাড়ির যদি অরিজিনাল এবং লিগাল কাগজপত্র না থাকে তাহলে আপনাকে লোন দেওয়া হবে না, লোন পেতে হলে অবশ্যই আপনার গাড়িটির কাগজ লিগাল এবং অরিজিনাল হতে হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক যানবাহন লোন প্রাপ্তির যোগ্যতা?

ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে যানবাহন লোন পাওয়ার জন্য আপনার অবশ্যই এই যোগ্যতা গুলো থাকতে হবে। 

  • প্রথমেই হচ্ছে আপনি যদি পুরাতন গাড়ি কিনেন তাহলে সেটার প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র অবশ্যই অরিজিনাল হতে হবে। 
  • আপনার মাসিক ইনকাম ২৫ হাজার টাকা থেকে ৫০ হাজার টাকা হতে হবে। 
  • গাড়ির প্রথম এক বছরের ইনসুরেন্স থাকতে হবে।
  • আপনার বয়স ১৮ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে হতে হবে। 
  • আপনি এই লোন নিয়ে কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য গাড়ি কিনতে পারবেন না। 

যানবাহন লোন পাওয়ার জন্য কাগজপত্র?

যানবাহন লোন এবং DBBL Personal Loan এই দুটি প্রায় একটি রকম, শুধু মাত্র গাড়ি রিলেটেড কাগজপত্র এখানে যোগ করা হয়েছে। 

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলো হলোঃ 

  • আপনার ভোটার আইডি কার্ডের দু’কপি ফটোকপি দিতে হবে। 
  • পাসপোর্ট সাইজের দু”কপি ছবি জমা দিতে হবে। 
  • আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের শেষ ১ বছরের স্টেটমেন্ট জমা দিতে হবে। 
  • আপনার কার/যানবাহন টির যে ইন্সুরেন্স রয়েছে সেটার কপি দিতে হবে, অরিজিনাল কপি দেওয়া লাগতে পারে।
  • এবং পুরাতন গাড়ি কিনলে সেটার লিগ্যাল লাইসেন্স কপি জমা দেওয়া লাগতে পারে কিংবা দেখানো লাগতে পারে। 
  • আপনার বাসার বিদ্যুৎ বিলের কপি দেওয়া লাগবে। 
  • টিন সার্টিফিকেট কিংবা আয়কর রিটানের রশিদ এর ফটো কপি দিতে হবে, অরিজিনাল কপি দেওয়া লাগতে পারে। 
  • আপনার একজন কাছের পরিচিত গ্যাঁড়ান্টার লাগবে, এবং তার ভোটার আইডি কার্ড কপি, ছবি, এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর কপি জমা দিতে হবে। 
  • আপনার বেবসা, চাকরি কিংবা অন্য কোন খ্যাঁতের ইনকামের প্রমান দিতে হবে, চাকরির বৈধতা যাচাই করার জন্য যেকোন ধরনের কাগজ প্রয়োজন হতে পারে। 

এই হলো প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলো যার মধ্যে মাত্র দুটি ছাড়া বাকী সবগুলোই ছিল একি। 

ডাচ বাংলা ব্যাংক যানবাহন লোন বৈশিষ্ট্য?

ডাচ বাংলা ব্যাংক যানবাহন লোন এর বৈশিষ্ট্য গুলো হচ্ছেঃ  

  • ডাচ বাংলা ব্যাংক যানবাহন লোনের জন্য সবনিম্ন ১ লক্ষ্য টাকা থেকে ৪০ লক্ষ্য টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া হয়, তবে গাড়ির মোট মূলের ৫০ শতাংশ পর্যন্ত লোন নিতে পারবেন। 
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক যানবাহন লোন ৬০ মাসের মধ্যে পরিসোদ করতে হয়। 
  • লোন প্রসেসিং ফী ০.৫০ শতাংশ, তবে ১৫ হাজার টাকার বেশি নয়। 
  • লোনের সুদের হার ৯ থেকে ১৭ শতাংশ, সুদের হার নিরবর করে আপনি কত টাকা লোন নিচ্ছেন এবং কত দিনের মধ্যে পরিশোদ করছেন, সঠিক সুদের হার জানার জন্য ডাচ বাংলা ব্যাংক- যোগাযোগ করুন। 

এই হলো যানবাহন লোনের সকল তথ্য আশা করি আপনারা বিস্তারিত তথ্য জানতে পেরেছেন এবং বুজতে পেরেছেন। 

উপসংহার

আগেই বলে নেই, ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন কিংবা অন্য যেকোন ব্যাংক লোন নিতে আমি আপনাদের নিরউৎসাহিত করছি, কারণ আমি একজন মুসলমান এবং লোন আমার জন্য নেওয়া হারাম, নেওয়ার জন্য পরামর্শ দেওয়া হারাম। দেওয়াও হারাম। 

আমি আপনাদের সাথে ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন সম্পর্কে সকল বিতারিত তথ্য জানিয়েছি, আপনার যদি আরও কিছু জানার প্রয়োজন হয় তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানান আমরা মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যে আপনাকে উত্তর দিব, ইনশাআল্লাহ।

Leave a Comment

x