ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান www.eporcha. gov.bd ই-পর্চা | ই পর্চা লগইন

২-৩ বছর আগেও বাংলাদেশে ব্যাবহার করা হতো হাতের লিখা পর্চা খতিয়ান যা অনুসন্ধান করতে চাইলে ভূমি মন্ত্রণালয়ের অফিসে না গিয়ে অনুসন্ধান করা যেতনা, তবে এখন সব কিছু আধুনিক হওয়ার সাথে সাথে পর্চা খতিয়ানও করা হয়েছে আধুনিক এবং ডিজিটাল। এখন আমরা চাইলে ঘড়ে বসেই মোবাইলের সাহায্যে মাত্র ৫ মিনিটে ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারি। 

আরও পড়ুন নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান মোবাইল দিয়ে

ই-পর্চা জমির খুব প্রয়োজনিয় একটি ডকুমেন্ট জমির মালিক অনুসন্ধান করার জন্য এটার প্রয়োজন হয়। আজকে আমরা এই আর্টিকেল থেকে কিছু বিষয়ে জানব। 

ই পর্চা খতিয়ান ঘড়ে বসে মোবাইল দিয়ে কিভাবে অনুসন্ধান করতে হয়? 
ই পর্চা খতিয়ান কিভাবে ডাউনলোড করতে হয়? এবং কত টাকা লাগে?
ই-পর্চা খতিয়ান অনলাইন করা না থাকলে কিভাবে অনলাইন করার জন্য আবেদন করতে হয়? এবং কত টাকা ফী দিতে হয়?

এই সকল প্রশ্নের উত্তর সঠিক ভাবে জানতে আমাদের এই আর্টিকেলটি পর্যায়ক্রমে পড়ুন। 

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার নিয়ম ঘড়ে বসে মোবাইল দিয়ে?

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

আপনার ই পর্চা খতিয়ানটি যদি ইতি মধ্যে অনলাইন করা হয়ে থাকে তাহলে আপনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে মাত্র ৫ মিনিটের মধ্যে কিছু তথ্য দিয়ে ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারবেন।

কিন্তু আপনার ই-পর্চা খতিয়ান যদি অনলাইন করা না থাকে তাহলে আপনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট থেকে ই-পর্চা খতিয়ানটি অনুসন্ধান করতে পারবেন না এমনকি ডাউনলোডও করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন খতিয়ান ও দাগের তথ্য অনুসন্ধান করার সহজ নিয়ম

অনলাইন ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করতে হলে আগে ই পর্চা খতিয়ানটি অনলাইন করার জন্য আবেদন করতে হবে। আবেদন করার নিয়ম দেখুন এই পোস্ট এর দ্বিতীয় অংশে।

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার জন্য সাধারণ কিছু তথ্যের প্রয়োজন হবে।

যেমন-

  • বিভাগজেলাউপজেলামৌজা
  • খতিয়ানের ধরন। একি নিয়মে যে কোন খতিয়ান ডাউনলোড করতে পারবেন।
  • ই পর্চা খতিয়ান নাম্বার
  • জমির দাগ নাম্বার এবং মালিকের নাম। 

নির্ভুল ভাবে ই-পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করতে ধাপ অনুযায়ী অনুস্মরণ করুন।

ধাপ ১– ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার জন্য প্রথমেই যেতে হবে বাংলাদেশ ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট https://www.eporcha.gov.bd/ -এ  

সেখান থেকে সার্ভে খতিয়ান অপশনটি বাছাই করতে হবে।

ধাপ ২- সার্ভে খতিয়ান অপশন-এ ক্লিক করার পর সেখান থেকে আপনার বিভাগ খুজে নিন। অবশ্যই আপনার জমি যেই বিভাগে আছে সেই বিভাগ বাছাই করতে হবে। যেমন আমি বাছাই করলাম রাজশাহী।

ধাপ ৩- আপনার বিভাগ নির্বাচন করার পর জেলা নির্বাচন করার অপশন আসবে সেখান থেকে আপনার জেলা নির্বাচন করুন। যেমন আমি নির্বাচন করলাম পাবনা জেলা। 

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

ধাপ ৪- এখানেও পূর্বের মতই আপনার জেলা নির্বাচন করার পর উপজেলা নির্বাচন করার অপশন আসবে। সেখান থেকে আপনার উপজেলা নির্বাচন করুন। যেমন ফরিদপুর। 

ধাপ ৫- এখানে আপনার খতিয়ানের ধরন নির্বাচন করুন। আমাদের দেখানো নিয়ম অনুস্মরণ করে এখানে থাকা সব ধরনের খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারবেন। আপনি যেই খতিয়ান অনুসন্ধান করতে চান সেটা এখান থেকে বাছাই করুন। যেমন আর এস খতিয়ান

আরও পড়ুন আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করার নিয়ম

ধাপ ৬- খতিয়ানের ধরন বাছাই করার পর আপনার মৌজা বাছাই করুন। একেত্রে নিশিত হয়ে নিন আপনার মৌজা কোনটি তারপর বাছাই করুন। যেমন নারায়নপুর

ধাপ ৭– একদম শেষ দাপ খতিয়ানের তালিকা অপশন-এ আপনার ই পর্চা খতিয়ান নাম্বার দিয়ে খুজুন বাটনে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পরেই আপনার খতিয়ানটির তথ্য দেখতে পারবেন। 

ধাপ ৮– খতিয়ান নাম্বার দিয়ে অনুসন্ধান করে না পেলে অধিকতর অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করুন। তারপর জমির মালিকের নাম এবং দাগ নাম্বার দিয়ে খুজুন বাটনে ক্লিক করলে ই পর্চা খতিয়ানের তথ্য দেখতে পারবেন।

আমাদের দেখানো এই নিয়মে ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার চেষ্টা করুন। ইনশাআল্লাহ অবশ্যই দেখতে পারবেন।

জমির খতিয়ান ডাউনলোড করার নিয়ম | ই-পর্চা খতিয়ান

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার পর যদি ডাউনলোড করার প্রয়োজন হয় তাহলে ১০০ টাকা নির্ধারিত ফী প্রধান করার মাধ্যমে আবেদন করে তাত্ক্ষণিক অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন। 

এবং আপনি চাইলে সার্টিফাইড কপিও নিতে পারবেন তবে এটা আপনার ঠিকানায় পৌছাতে ৭ দিন সময় লাগবে। 

জমির খতিয়ান ডাউনলোড করার জন্য আরও কিছু তথ্যের প্রয়োজন হবে। 

যেমন-

  • জাতীয় পরিচয়পত্র নং
  • জন্ম তারিখ
  • মোবাইল নাম্বার 
  • নাম (ইংরেজি)
  • ইমেইল
  • ঠিকানা 

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার একদম শেষে যখন আপনার খতিয়ান খুজে পাবেন তখন আপনার নামের উপরে দুটি ক্লিক করলে এই রকম আসবে। সেখান থেকে খতিয়ান আবেদন বাটনে ক্লিক করুন। 

ছবি দেখুন…

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

খতিয়ান আবেদন বাটনে ক্লিক করলে খতিয়ান আবেদন ফর্ম অপশন-এ নিয়ে যাবে। সেখানে ৩ টি ধাপে খতিয়ান ডাউনলোড করা সম্পন্ন করুন। 

ধাপ ১– প্রথম ধাপে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নাম্বার, জন্ম তারিখ এবং  মোবাইল নাম্বার দিয়ে যাচাই করুন বাটনে ক্লিক করুন।

সকল তথ্য সঠিক হলে যাচাই সফল দেখাবে।

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

ধাপ ২আপনার নাম দিন ইংরেজি তে, একটা জিমেইল দিতে পারেন যদি আপনার থাকে তবে না দিলেও সমস্যা হবেনা, তারপর আপনার ঠিকানা দিন এবং আবেদনের ধরন বাছাই করুন। 

আপনি যদি অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে চান তাহলে অনলাইন কপি নির্বাচন করুন। 

আর যদি সার্টিফাইড কপি পেতে চান তাহলে সার্টিফাইড কপি বাটনে ক্লিক করে অফিস কাউন্টার কিংবা ডাকযোগ নির্বাচন করুন। 

তাত্ক্ষণিক ডাউনলোড কিংবা অনলাইন কপির কেত্রে ১০০ টাকা ফী প্রধান করতে হবে। কিন্তু ডাকযোগের মাধ্যমে ডেলিভারি নিলে আরও ৪০ টাকা পোস্ট ফি দিতে হবে। মোট ১৪০ টাকা প্রধান করতে হবে ডাকযোগে ডেলিভারি নিলে।

আপনি দেশের বাহিরে থাকলেও এই ই পর্চা খতিয়ানটি দেশের বাহিরে নিতে পারবেন নির্ধারিত ফী প্রধান করে। 

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

ধাপ ৩– এখানে আপনাকে ফী প্রধান করতে হবে। বিকাশ, নগদ, রকেট, উপায় এই মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপ গুলোর মাধ্যমে ফী প্রধান করতে পারবেন। পরবর্তী ধাপ (ফী পরিশোধ) বাটনে ক্লিক করে ফী পরিশোধ করুন। 

ফী প্রধানের নিয়ম সবার জানা তাই এটা আমরা আর দেখাচ্চিনা। ফী প্রধান করা হয়ে গেলে ডাউনলোড করার অপশন পাবেন এবং যারা ডাকযোগে নিবের তাদের আবেদন সম্পন্ন হবে। 

ই পর্চা খতিয়ান অনলাইন করার জন্য আবেদন পদ্ধতি।

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান

জমির খতিয়ান ডাউনলোড করার নিয়ম এবং খতিয়ান অনলাইন করার জন্য আবেদন করার নিয়ম ৯৫ শতাংশ একরকম। 

তবুও আপনাদের বুঝার জন্য দেখাচ্ছি।

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার জন্য আপনার বিভাগ, জেলা, উপজেলা, খতিয়ানের ধরন এবং মৌজা সবকিছু নির্বাচন করার পর খতিয়ানের তালিকা অপশন-এ এসে যদি আপনার খতিয়ান নাম্বার তথ্য দেখতে না পান তাহলে খতিয়ান আবেদন বাটনে ক্লিক করুন।  

ক্লিক করার পর আগের মতই একটি ফর্ম অপশন ওপেন হবে সেটা ফিলাপ করুন। খতিয়ান ডাউনলোডের জন্য আবেদন ফর্ম এবং খতিয়ান অনলাইন করার জন্য আবেদন ফর্ম একরকম তবে অনলাইন করার জন্য আবেদন ফর্মে অনলাইন কপি ডাউনলোড করার অপশনটি পাবেন না। 

ই পর্চা খতিয়ান অনলাইন করার জন্য আবেদন করার সময় শুধু মাত্র সার্টিফাইড কপির অপশন পাবেন। সেটা ৭ দিনের মধ্যে অফিস কাউন্টার অথবা ডাকযোগে নিতে পারবেন। 

বিস্তারিত জানার জন্য দ্বিতীয় অংশ পড়ুন। 

উপসংহার

আমরা আজকে জানলাম কিভাবে ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করতে হয়। ই পর্চা খতিয়ান খুবি গুরুত্বপূর্ণ একটি ডকুমেন্ট। তবে এই আমাদের অনুসন্ধান করা ই পছা খতিয়ান সার্টিফাইড কপি সকল কাজে ব্যাবহার করা যাবেনা। 

আমরা এই বিষয়ে অবগত নই যে কোন কোন বিষয়ে এই ই-পর্চা খতিয়ান কাজে লাগবে বা লাগবেনা। আপনারা কেউ অবগত থাকলে আমাদের জানাতে পারেন, তাহলে আমরা এই পোস্টটি আপডেট করে দিব। 

ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান করার কেত্রে কোন সমস্যার সম্মুক্কিন হলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন আমরা খতিয়ান অনুসন্ধান করতে সাহায্য করার চেষ্টা করব।

আমাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য Contact ফর্ম ফিলাপ করে Submit করুন অথবা কমেন্ট করুন।
এই একটি মাত্র পোস্ট লিখতে আপনাদের অনেক সময় লাগে তাই আমাদের এই পোস্ট যদি আপনার কাজে আসে তাহলে আপনার থেকে একটি কমেন্ট অথবা শেয়ার আশা করি।

Leave a Comment

x