অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

একজন বাংলাদেশি নাগরিক হওয়ায় যে কোন কাজে দরকার হয় ভোটার আইডি কার্ডের। আগের দিন গুলোতে আমরা অনেকেই ভোতার আইডি কার্ড চেক করতে পারতাম না। 

এমনকি চেক করতে পারলেও অনেক বুগান্তির সম্মুক্কিন হতে হতো, তবে এখন আমরা খুব সহজেই ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারি।

আরও পড়ুন অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করুন

আপনি নতুন হলে অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন এবং পুরাতন ভোটার হলেও অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন। 

ভোটার আইডি কার্ড চেক অনেক ভাবে করা যায় তবে আজকে আমরা আপনাদের সবচেয়ে সহজ ভাবে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার পদ্ধতি দেখাব। 

আরও পড়ুন ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য আপনার সাধারণ কিছু তথ্য জানা থাকতে হবে তাহলেই আপনি ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারেবন। 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য কি কি প্রয়োজন? 

আপনি যদি নতুন ভোটার হন তাহলে আপনার ভোটার ফ্রম নাম্বার এবং জন্ম তারিখ জানা থাকা লাগবে তাহলেই ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন খুব সহজেই।

ভোটার আইডি কার্ড ফর্ম নাম্বার দিয়ে মাত্র ২ মিনিটে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন। 

আপনি যদি এখনো ভোটার আইডি কার্ড সরকারি ভাবে না পেয়ে থাকেন তাহলে আপনি ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার পর সেটা    ফ্রীতে ডাউনলোড করে অনলাইন কপি হিসাবে ব্যাবহার করতে পারবেন। এবং সরকারি, বেসরকারি সকল কাজে লাগাতে পারবেন। 

অথবা আপনি যদি পুরাতন ভোটার হন আর আপনার ভোটার আইডি কার্ড হাঁড়িয়ে যায় কিংবা নষ্ট হয়ে যায় তাহলেও খুব সহজে আপনার হারানো ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন। 

একেত্রেও আপনার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার এবং জন্ম তারিখ জানা থাকা লাগবে। আপনার ভোটার আইডি কার্ড চেক করার পর অনলাইন কপি ডাউনলোড করার সুযোগ থাকছে। 

তবে আপনি যদি কখনো সরকারি ভাবে ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করে থাকেন তাহলে আপনি ফী তে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন না। 

একেত্রে আপনার ভোটার আইডি কার্ড চেক করার পর বাংলাদেশ সরকার নির্ধারিত ফী প্রধান করে তার পর ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। 

নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করার ৩টি পদ্ধতি

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম NID Card Check (1)

১- আমরা খুব সহজেই মাত্র ২ মিনিটের মাধ্যমে বাংলাদেশ ভূমি উন্নয়ন কর সিস্টেম অটোমেশন ওয়েবসাইট থেকে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারব। 

২- আরেকটি মাধ্যম হলো বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অচিফিয়াল NID Servise এর ওয়েবসাইট থেকে নতুন ভোটার এবং পুরাতন ভোটার যে কেউ খুব সহজে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারব। 

এবং নতুন ভোটার ফ্রম নাম্বার দিয়েও ভোটার আইডি কার্ড চেক করা যাবে। 

উভয়েই বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের NID Serivse -এর ওয়েবসাইট থেকে ভোটার আইডি কার্ড চেক করে সেখান থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। 

৩- নতুন ভোটার যারা হয়েছে তারা স্লিপ নাম্বার এবং জন্ম তারিখ দিয়ে মোবাইল SMS এর মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ড এর নাম্বার জানতে পারবেন। 

এবং পরবর্তীতে সেই ভোটার আইডি নাম্বার দিয়ে অনলাইন ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন, এবং ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে সেটা বিভিন্ন কাজে ব্যাবহার করতে পারবেন। 

ভূমি উন্নয়ন কর ওয়েবসাইটে ভোটার আইডি কার্ড চেক  

আমরা প্রথমে দেখব বাংলাদেশ ভূমি উন্নয়ন কর সিস্টেম অটোমেশন ওয়েবসাইট থেকে কিভাবে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে হয়। 

ধাপ ১- ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য প্রথমে এই লিংক কপি করে আপনার মোবাইল অথবা কম্পিউটারের যে কোন একটা ব্রাউজার-এ পেস্ট করুন। লিংক – https://ldtax.gov.bd/   

এই লিংক আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউজারে পেস্ট করার পর এই রকম একটি পেইজ আসবে

ধাপ ২– সেখানে ভূমি অন্নয়ন কর ব্যবস্থাপনা সিস্টেম এর আন্ডারে দেখতে পারেবন নাগরিক নিবন্ধন অপশন রয়েছে। 

এখানে আপনার মোবাইল নাম্বার বসান, NID Card করার সময় যে নাম্বার দেওয়া হয়েছিল সেটা না দিলেও চলবে, অন্য যে কোন নাম্বার দিয়ে লগইন করা যাবে। 

তবে ইতি পূর্বে অন্য কোন ভোটার আইডি কার্ড চেক করা হয়েছে এই রকম নাম্বার দিলে হবেনা, নতুন একটি নাম্বার দিতে হবে যেই নাম্বার দিয়ে ভূমি উন্নয়ন কর ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট করা হয়নি।  

মোবাইল নাম্বার বসিয়ে তার নিছে যোগ করুন অপশন-এ থাকা দুটি সংখার যোগ ফল বসান। 

তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ “বাটনে” ক্লিক করলেই আপনাকে পরবর্তী পাইজে নিয়ে যাবে সেখানে একটি OTP কোড বসাতে হবে। যেটা আপনার বসানো মোবাইল নাম্বারে পাঠানো হয়েছে সেটা এখানে বসান। 

ছবি দেখুন… (১)

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম  NID Card Check

ধাপ ৩– তারপর আপনার অ্যাকাউন্ট এর জন্য একটি পাসওয়ার্ড দিতে হবে। নতুন পাসওয়ার্ড এবং পাসওয়ার্ড নিশ্চিত করুন এই দুটি অপশন-এ একি রকম পাসওয়ার্ড বসান।  

এবং নিছের যোগ করুন অপশন এর দুটি সংখ্যার যোগ ফল নিছের বক্স-এ বসান এবং সংরক্ষণ করুন বাটনে ক্লিক করুন। ছবি দেখুন… (২) 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম  NID Card Check

ধাপ ৪– আপনি ইতি মধ্যে বাংলাদেশ ভূমি উন্নয়ন কর ওয়েবসাইটে একটি অ্যাকাউন্ট করেছেন। 

এখন আপনি দেখতে পারবেন আপনাকে আবারও একদম প্রথমের পেইজে নিয়ে এসেছে।

এখান থেকে এখন আপনি নাগরিক লগইন বাটনে ক্লিক করুন এবং আগে যেই নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে অ্যাকাউন্ট করেছেন সেই নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড এখানে বসান। 

তারপর আবারও পূর্বের মত যোগ করুন অপশন-এ থাকা দুটি সংখার যোগ ফল নিছে বসিয়ে লগইন করুন বাটনে ক্লিক করুন। 

ছবি দেখুন… (৩) 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম  NID Card Check

ধাপ ৫- নাগরিক লগইন অপশন থেকে লগইন করার পর আপনার প্রোফাইল-এ নিয়ে যাবে, সেখানে লেফট সাইডে দেখতে পারবেন এনআইডি ভেরিফাই করুন অপশন আছে। 

সেখানে ক্লিক করুন তারপর আপনার সামনে জাতিয় পরিচয়পত্রের তথ্য ভেরিফাই অপশন আসবে। 

সেখানে আপনার জাতিয় পরিচয়পত্র নাম্বার দিন এবং নিছে আপনার জন্ম তারিখ বাছাই করুন। 

আপনার এনআইডি কার্ডের তথ্য সঠিক হলে যাচাই ও হালনাগাদ করুন “বাটনে” ক্লিক করুন। 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম  NID Card Check

যাচাই সম্পন্ন হলে আপনার অ্যাকাউন্ট-এ ফিরিয়ে নিয়ে যাবে সেখান থেকে প্রোফাইল অপশন-এ ক্লিক করলে আপনার তথ্য দেখতে পারবেন। 

ভূমি উন্নয়ন কর ওয়েবসাইটে ভোটার আইডি কার্ড চেক করলে শুধু মাত্র আপনার নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম, ঠিকানা এবং লিঙ্গ দেখতে পারবেন। 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম  NID Card Check

আপনি যদি চান এখান থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে সেটাও পারবেন না। এখানে শুধু তথ্য দেখতে পারবেন।

এখানে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য অবশ্যই আপনার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার এবং জন্ম তারিখ জানা থাকা লাগবে, শুধু মাত্র ভোটার ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভূমি উন্নয়ন কর ওয়েবসাইটে ভোটার তথ্য যাচাই করতে পারবেন না। 

শুধু মাত্র ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য আপনার NID Servise ওয়েবসাইটে যেতে হবে যা আমরা এখনি শিখব।

NID Servise ওয়েবসাইটে নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম 

আপনি নতুন ভোটার হোন কিংবা পুরাতন ভোটার, ফ্রম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে চান কিংবা NID নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে চান যেকোন ভাবে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন এই সাইট থেকে। 

এবং এই সাইট থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন এবং ব্যাবহার করতে পারবেন সকল কাজে। 

ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক 

প্রথমে দেখে নেওয়া যাক ফর্ম নাম্বার দিয়ে কিভাবে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে হয়। 

ধাপ অনুস্মরণ করুন তাহলে সহজে বুজতে পারবেন। 

ধাপ ১– ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য প্রথমে আপনার মোবাইলে থাকা যে কোন একটা ব্রাউজার ওপেন করুন এবং এই লিংক টি এখান থেকে কপি করে আপনার ওয়েবসাইটে পেস্ট করুন। 

লিংক – https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/

লিংক পেস্ট করার পর সেখানে প্রবেস করলে এখানে দুটি অপশন দেখতে পারেবন প্রথমটি হলো অ্যাকাউন্ট নেই এবং দ্বিতীয়টি হলো নতুন নিবন্ধনের জন্য আবেদন। 

ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য অ্যাকাউন্ট নেই অপশনে ক্লিক করুন! 

ছবি দেখুন… (১) 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

ধাপ ২– অ্যাকাউন্ট নেই অপশনে ক্লিক করার পর আপনাকে অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার পেইজ-এ নিয়ে যাবে, সেখানে দেখতে পারবেন জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর / ফর্ম নম্বর বসানোর বক্স আছে। 

সেখানে আপনার নতুন ভোটার ফর্ম নাম্বার বসান, এবং নিছে থাকা দিন,মাস, এবং বছর বক্সে আপনার জন্ম দিন, জন্ম মাস এবং জন্মের বছর বসান। 

তারপরে দেখতে পারবেন হালকা যাপসা করে কিছু একটা লিখা আছে সেটা ভালো করে দেখে নিছের বক্সে একদম হুবহো বসান। তারপর সাবমিট “বাটনে” ক্লিক করুন। 

বুজতে সমস্যা হলে ছবি দেখুন, আপনার সুবিধার জন্য প্রতিটি ধাপের ছবি দেওয়া হয়েছে। ছবি (২)

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

ধাপ ৩– আপনার ফর্ম নাম্বার এবং জন্ম তারিখ ঠিক মত দিয়ে সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পর এখানে নিয়ে যাবে। 

এখানে আপনার স্থায়ী এবং বর্তমান ঠিকানা বাছাই করতে হবে। প্রথমে আপনার বর্তমান ঠিকানা নির্বাচন করুন। 

প্রথমে বিবাগ, তারপর জেলা, এরপর উপজেলা নির্বাচন করুন। যেমন আমি নির্বাচন করাল – বিভাগঃ সিলেট, জেলাঃ হবিগঞ্জ, উপজেলাঃ নবিগঞ্জ। 

এই রকম ভাবে আপনিও আপনার স্থায়ী এবং বর্তমান ঠিকানা নির্বাচন করুন। 

ঠিকানা নির্বাচন করা শেষ হয়ে গেলে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন।

ছবি দেখুন (৩) 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

ধাপ ৪– স্থায়ী এবং বর্তমান ঠিকানা দিয়ে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করলে অ্যাকাউন্ট রেজিস্টার মোবাইল নাম্বার পেইজ-এ নিয়ে আসবে। 

এখানে আপনি ভোটার আইডি কার্ড করার জন্য আবেদন করার সময় যেই মোবাইল নাম্বার দিয়েছিলেন সেটা দেখাবে। 

আপনি যদি এই নাম্বারটির মাধ্যমেই রেজিস্টার সম্পন্ন করতে চান তাহলে বার্তা পাটান বাটনে ক্লিক করুন, 

অথবা আপনার কাছে যদি এই মোবাইল নাম্বার এখন না থাকে কিংবা হাঁড়িয়ে যায় কিংবা আপনি এই মোবাইল নাম্বারটি এখন আর ব্যাবহার করতে না চান তাহলে মোবাইল পরিবর্তন বাটনে ক্লিক করুন। 

যেমন – আমি এই নাম্বারটি বহাল রাখতে চাই বার্তা পাটান বাটনে ক্লিক ক্লিক করলাম। 

এখন এই মোবাইল নাম্বারে একটি যাচাইকরণ কোড আসবে সেটা বসান। 

আপনি যদি মোবাইল পরিবর্তন বাটনে ক্লিক করেন তাহলে যেই মোবাইল নাম্বারটি এখন দিতে চান সেটা দিবেন এবং যাচাইকরণ কোড আসলে সেটা বসাবেন। 

ছবি দেখুন (৪)

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

ধাপ ৫– মোবাইল নাম্বারে যাচাইকরণ কোড আসার পর কোড বসিয়ে বহাল বাটনে ক্লিক করলে আপনাকে এই পেইজ-এ নিয়ে আসবে, এখানে রয়েছে QR Code।

এখন আপনার মোবাইলে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে এবং সেটায় ফেচ ভেরিফিকেশন করতে হবে। 

অ্যাপ ডাউনলোড করার জন্য Play Store-এ যান এবং সার্চ করুন NID Wallet লিখে। 

এই অ্যাপটি ডাউনলোড করুন এবং ওপেন করুন। মনে রাখবেন এই সময় আপনার ব্রাউজার যেনো রিফ্রেশ না হয়, তাহলে আপনাকে আপবার প্রথম থেকে কাজটা করতে হবে। 

অ্যাপ ওপেন করার পর QR Code স্কান করার জন্য একটা অপশন আসবে, এখন আপনার ব্রাউজারে যেই QR Code শো করছে সেটা মোবাইলের মাধ্যমে স্কান করুন। 

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

স্কান করার পর Face ভেরিফিকেশন করার অপশন পাবেন। 

তবে এই পরক্রিয়াটি শুধু কম্পিউটারের জন্য, আপনি যদি মোবাইল থেকে ভোটার আইডি কার্ড চেক করেন তাহলে QR Code স্কান করতে হবেনা, অ্যাপ অটোমেটিক Face স্কান করার ধাপে নিয়ে যাবে। 

এখন যেই ব্যক্তির ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে চাচ্ছেন থাকে মোবাইলের সামনে নিয়ে আসোন এবং Face ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করুন।  

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

ধাপ ৬– Face ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হলে আবারও আপনার ব্রাউজারে ফেরত যান দেখতে পারবেন আপনার নাম দেখাচ্ছে এবং পাসওয়ার্ড সেট করার একটি অপশন আসছে। 

আপনার ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য প্রথমে দেখুন আপনার নাম সঠিক আছে নাকি যদি সঠিক থাকে তাহলে সেট পাসওয়ার্ড বাটনে ক্লিক করুন। 

তারপর আপনার একটি উজারনেম দিন এবং একটি পাসওয়ার্ড দিন এবং আপডেট বাটনে ক্লিক করুন।  

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সহজ নিয়ম | NID Card Check

ধাপ ৭– আপডেট বাটনে ক্লিক করলেই আপনার কাজ শেষ এখানে দেখতে পারবেন আপনার প্রোফাইল ওপেন হয়েছে। 

এখানে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের যাবতীয় সকল তথ্য দেখতে পারবেন এবং একদম নিছের ডাউনলোড অপশন থেকে অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন। 

সকল তথ্য দেখার জন্য বিস্তারিত প্রোফাইল বাটনে ক্লিক করুন। 

ভোটার আইডি কার্ডের অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য আপনার প্রোফাইলের হোম পেইজ-এ দেখতে পারবেন একদম শেষ অপশন ডাউনলোড বাটন আছে, 

ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করলেই ভোটার আইডি কার্ডের অনলাইন কপি ডাউনলোড হওয়া শুরু হবে। 

এখানেই শেষ, এখন যদি আপনারা চান, তাহলে এই অনলাইন কপি প্রিন্ট করে অরিজিনাল কপির মতই সকল কাজে ব্যাবহার করতে পারবেন।  

NID নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক

NID নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য প্রথমেই লাগবে আপনার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার এবং জন্ম তারিখ। 

তারপর আপনার মোবাইল থেকে একটি ব্রাউজার নির্বাচন করে সেখানে এই লিংক কপি করে পেস্ট করুন। 

লিংক – https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/

আগেই বলে নেই আমরা ভোটার ফর্ম নাম্বার দিয়ে যেই রকম ভোটার আইডি কার্ড চেক করেছি ঠিক একি রকম ভাবে এনআইডি নাম্বার দিয়েও ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে হয়। 

তবে শুধু মাত্র একটি জায়গায় একটু অন্য রকম, তাই আমরা শুধু এই টুকু দেখাব এবং অন্য সবকিছু ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার মত হওয়ায় এখানে আর দ্বিতীয় বার বলা হবেনা কিংবা দেখানো হবেনা। 

অনুগ্রহ করে ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার ধাপ গুলো দেখে নিন তাহলেই সবকিছু সহজ ভাবেই বুজতে পারবেন। 

তু লিংকে প্রবেস করার পর অ্যাকাউন্ট নেই অপশন থেকে রেজিস্টার করুন বাটনে ক্লিক করার পর ভোটার আইডি কার্ড এবং ফর্ম নাম্বার বসানোর বক্স থাকে, 

সেখানে আপনার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার বসান এবং তার নিছের অপশন গুলো থেকে আপনার জন্ম তারিখ নির্বাচন করুন। 

আমরা ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার সময় সেখানে ফর্ম নাম্বার বসিয়ে ছিলাম এবং এখন এনআইডি নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করার জন্য এনআইডি নাম্বার বসিয়েছি। 

এখানে শুধু এইটুকুই পার্থক্য, এনআইডি নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করলে এনআইডি নাম্বার দিতে হবে এবং ফর্ম নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড চেক করলে ফর্ম নাম্বার দিতে হবে। 

SMS এর মাধ্যমে নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক

SMS এর মাধ্যমে নতুন ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে প্রয়োজন হবে আপনার নতুন ভোটার ফর্ম নাম্বার কিংবা স্লিপ নাম্বার এবং জন্ম তারিখ প্রয়োজন হবে।

তারপর আপনার মোবাইল থেকে SMS অপশন এ গিয়ে NID space From Number Space DD-MM-YYYY লিখে ১০৫ নাম্বারে SMS Send করুন। কিছুক্ষণের মধ্যেই বাংলাদেশ NID Servise মন্ত্রণালয় থেকে আপনাকে ফিরতি মেসেজে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার। 

তারপর আপনার সেই ভোটার আইডি কার্ড নাম্বার দিয়ে NID Servise ওয়েবসাইট থেকে ভোটার আইডি কার্ডের মাধ্যমে আপনার ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন। 

সেখানে আপনার সকল তথ্য দেখা যাবে। 

আপনি চাইলে সেখান থেকে আপনার ভোটার আইডি কার্ড চেক করার পর সেটা ডাউনলোড করতে পারবেন এবং সেটা সর্বকেত্রে ব্যাবহার করতে পারবেন।

Leave a Comment

x